Home / খেলাধুলা / এসেই সাকিবের উইকেট

এসেই সাকিবের উইকেট

স্পোর্টস ডেস্ক : বল হাতে নিয়েই উইকেট উৎসব করলেন সাকিব আল হাসান। নিজের তৃতীয় বলেই উইকেট তুলে নিয়েছেন এই স্পিনার। যাতে ৩ উইকেট হারানো আফগানিস্তানের রান ৮১।

সাকিবের এই উইকেটের সঙ্গেও জড়িয়ে আছে আবু হায়দারের নাম। আবুধাবির ম্যাচে বোলিংয়ের পর ফিল্ডিংয়েও জাদু দেখালেন এই পেসার। তার দুর্দান্ত ক্যাচেই ফিরে গেছেন ভয়ঙ্কর হয়ে ওঠা মোহাম্মদ শাহজাদ। সাকিবের বল লং অন দিয়ে সীমানার ওপার পাঠাতে চেয়েছিলেন শাহজাদ। তবে আবু হায়দারের দুর্দান্ত ক্যাচে তা হয়নি। সীমানার সামনে থেকে অনেকটা লাফিয়ে তিনি নিয়েছেন দেখার মতো এক ক্যাচ। যাতে ৩৭ রানে শেষ হয় শাহজাদের ইনিংস।

চমৎকার এই ক্যাচের আগে বল হাতে জাদু দেখিয়েছেন আবু হায়দার। অনেক অপেক্ষা শেষে ওয়ানডে দলে সুযোগ মিলেছে তার। নিজেকে প্রমাণ করতে তাই বেশি সময় নেননি এই পেসার। ওয়ানডে ক্যারিয়ারের চতুর্থ বলেই উইকেট তুলে নিলেন তিনি। অবশ্য এখানেই থামেননি, আবারও মেতেছিলেন উইকেট উৎসবে। দ্বিতীয় ওভারেই বাংলাদেশ পেয়েছে প্রথম উইকেট। আবু হায়দারের অফ স্টাম্পের বেশ খানিকটা বাইরের বলে ব্যাট চালিয়ে কাভারে ধরা পড়েন ইহসানউল্লাহ। মোহাম্মদ মিঠুনের তালুবন্দী হওয়ার আগে আফগান ব্যাটসম্যান করেন ৮ রান।

মাঝে এক ওভার বিরতি দিয়ে আবার উইকেট পেয়েছেন বাঁহাতি এই পেসার। এবার তার শিকার রহমত শাহ। শ্রীলঙ্কা ম্যাচে দুর্দান্ত ব্যাটিং করা এই ব্যাটসম্যানকে সরাসরি বোল্ড বলে প্যাভিলিয়নে ফেরান আবু হায়দার। আউট হওয়ার আগে রহমত করতে পেরেছেন ১০ রান।

সুপার ফোর নিশ্চিত হয়ে গেছে বাংলাদেশের আগেই। আফগানিস্তানেরও শেষ চার নিশ্চিত প্রথম ম্যাচ জিতে। গ্রুপ পর্বের প্রথম ম্যাচ জেতা দল দুটি মুখোমুখি হয়েছে বৃহস্পতিবার। আবুধাবির এই ম্যাচে টস হেরে ফিল্ডিংয়ে নেমেছে বাংলাদেশ। সুপার ফোর আগেই নিশ্চিত হওয়ায় একাদশে বেশ কয়েকটি পরিবর্তন এনেছে বাংলাদেশ। তামিম ইকবাল আগেই ছিটকে গেছেন ইনজুরিতে, তার জায়গায় ‍নতুন ‍কারও আসাটা প্রত্যাশিতই ছিল। বিশ্রাম দেওয়া হয়েছে আগের ম্যাচের সেঞ্চুরিয়ান মুশফিকুর রহিমকে। পেসার মোস্তাফিজুর রহমানও নেই আফগানিস্তানের বিপক্ষে।

তাদের বিশ্রামে কপাল খুলেছে মুমিনুল হকের, আর ওয়ানডে ক্রিকেটের স্বাদ পেয়েছেন পেসার আবু হায়দার রনি ও ব্যাটসম্যান নাজমুল হোসেন শান্ত। এই দুই ক্রিকেটারের ওয়ানডে অভিষেক হচ্ছে আগানদের বিপক্ষে।

বাংলাদেশ একাদশ: লিটন দাস, মুমিনুল হক, সাকিব আল হাসান, নাজমুল হোসেন শান্ত, মোহাম্মদ মিঠুন, মাহমুদউল্লাহ, মোসাদ্দেক হোসেন, মেহেদী হাসান মিরাজ, মাশরাফি বিন মুর্তজা, আবু হায়দার রনি, রুবেল হোসেন।

আফগানিস্তান একাদশ: মোহাম্মদ শাহজাদ, ইহসানউল্লাহ, রহমত শাহ, আজগর স্ট্যানিকজাই, হাশমতউল্লাহ শহীদি, মোহাম্মদ নবী, সামিউল্লাহ শেনওয়ারি, গুলবাদিন নাইব, রশিদ খান, আফতাব আলম, মুজিব উর রহমান।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *