Home / সারাদেশ / তিন মামলায় কারাগারে এহছানুল হক মিলন

তিন মামলায় কারাগারে এহছানুল হক মিলন

সংবাদদাতা :: সাবেক শিক্ষা প্রতিমন্ত্রী ও বিএনপির আন্তর্জাতিক-বিষয়ক সম্পাদক আ ন ম এহছানুল হক মিলনকে কারাগারে পাঠিয়েছেন আদালত। শুক্রবার (২৩ নভেম্বর) দুপুর ১টার দিকে চাঁদপুরের সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট সফিউল আজমের আদালতে মিলনকে হাজির করা হলে, আদালত তাকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন। একটি হত্যা মামলা, একটি হত্যা চেষ্টা মামলা ও একটি চাঁদাবাজির মামলায় তাকে গ্রেফতার দেখানো হয়। এর আগে ভোরে চট্টগ্রাম নগরীর চকবাজার থানার চট্টেশ্বরী এলাকার একটি বাসা থেকে তাকে গ্রেফতার করে চাঁদপুর গোয়েন্দা পুলিশ।

 

আসামিপক্ষের আইনজীবী অ্যাডভোকেট কামরুল ইসলাম বলেন, ‘দীর্ঘদিন এহসানুল হক দেশের বাইরে ছিলেন। এরপর তিনি ওমরা করতে সৌদি আরব গেলে সেখানে অসুস্থ হয়ে পড়েন। দীর্ঘদিন সেখানে তিনি চিকিৎসাধীন ছিলেন। কিছুদিন আগে দেশে ফিরেছেন। দেশে এসে তার ইচ্ছে ছিল স্বেচ্ছায় আদালতে হাজির হবেন। কিন্তু একটি বিশেষ পরিস্থিতি তৈরি হওয়ার কারণে আদালতে হাজির হতে পারেননি।’

 

এহছানুল হকের এই আইনজীবী বলেন, ‘সব মামলার ওয়ারেন্ট কচুয়া থানা থেকে আসেনি। যে কয়টি মামলায় তাকে শোন অ্যারেস্ট দেখানো হয়েছে সেগুলো বিচারিক আদালতের মামলা। আজ তিনটি মামলায় তাকে শোন  অ্যারেস্ট করা হয়েছে। আগামী রবিবার শুনানি হবে।’

 

অ্যাডভোকেট কামরুল ইসলাম আরও বলেন, ‘আমরা আদালতের কাছে আবেদন করেছি, তিনি যেহেতু গুরুতর অসুস্থ, জেলখানায় তার প্রপার ট্রিটমেন্ট দেওয়ার জন্য। আদালত বলেছেন এ বিষয়ে একটি দরখাস্ত দেওয়ার জন্য। সেটিও আমরা করেছি। এর পরিপ্রেক্ষিতে আদালত তার চিকিৎসার ব্যবস্থা নেবেন বলে আমরা আশা করছি।’

 

শুক্রবার সকাল থেকেই আদালত প্রাঙ্গণে উপস্থিত ছিলেন— জেলা বিএনপির আহ্বায়ক শেখ ফরিদ আহমেদ মানিক, মিলনের স্ত্রী বিএনপির মহিলা দলের কেন্দ্রীয় সহসভাপতি নাজমুন নাহার বেবীসহ বিএনপি ও এর অঙ্গ-সহযোগী সংগঠনের কয়েকশ নেতাকর্মী।

 

এর আগে ভোরে চট্টগ্রামের চকবাজার এলাকা থেকে আত্মীয় শাহ আলমের বাসা থেকে এহসানুল হককে গ্রেফতার করে পুলিশ। সকালে তাকে চাঁদপুর এনে প্রথমে পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে নিয়ে রাখা হয়। সেখান থেকে তাকে বেলা ১১টায় আদালতে নেওয়া হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *