Home / বিনোদন / ‘মা’ হতে অনীহা কেন তাদের??

‘মা’ হতে অনীহা কেন তাদের??

বিনোদন ডেস্ক :: স্বামী-স্ত্রীর ঝগড়া নেই। রোজগার নিয়ে চিন্তা নেই। আমরা ভাবি, সোনার সংসার। কিন্তু কতটা সোনার আর কতটা পূর্ণ সেই সংসার, যদি সন্তানই না থাকে। মা, পৃথিবীর সবচেয়ে সুন্দর শব্দ। আর মা হওয়ার মাধ্যমেই একজন নারীর জীবন পূর্ণতা পায়। মাতৃত্বের আনন্দ সীমাহীন। কিন্তু এমন অনেক নারী আছেন ক্যারিয়ারের জন্য মাতৃত্বের আকাঙ্খা ত্যাগ করেন। বিশেষ করে শোবিজে জগতে এই ধারাটা বেশ প্রচলিত। তারকারা নিজ মাধ্যমে সফলতা পেলেও মা হওয়া থেকে দূরে থাকেন। আবার অনেকে মনে করেন, শোবিজে ডিভোর্সের ফ্রিকোয়েন্সি এত বেশি। সেখানে অনাগতদের কি হবে। ফলশ্রুতিতে তারকারা সাহস পান না সন্তান জন্ম দেয়ার মত সিদ্ধান্ত নিতে। অনেকে তো মা হলেও লুকিয়ে রাখেন সে খবর। ‘মা’ হওয়া নিয়ে কেন এত লুকোচুরি? ‘মা’ হলে কি গ্ল্যামার কমে যায়? বলিউডের কাজল, কারিনা, ঐশ্বরিয়ারা তো ঠিকই ফিরে আসেন সদর্পে। আমাদের দেশের অনেক অভিনেত্রীরা `মা` হয়েছেন। তাতে কি আসে যায়! চুটিয়ে অভিনয় করছেন।

 

সাধারণভাবে ২৫ থেকে ৩০ বছর হলো প্রথম মা হওয়ার উপযুক্ত সময়। তবে বিয়ের পরে নানা কারণে সময়মতো মা হতে পারেননি। ক্যারিয়ার গুছিয়ে একটু বেশি বয়সে বিয়ে, সংসারে সময় দেয়া- এমন নানা জটিলতার কারণে সময় কখন পেরিয়ে গেছে হয়তো বুঝতেও পারেননি। যখন ভাবলেন, তখন কিছুটা দেরি হয়ে গেছে। বয়স ৩৪ পেরিয়েছে। তাই বলে কি মা হওয়া সম্ভব নয়?

 

সাধারণত ৩৪ বছর বয়সের পরে মা হলে সেটিকে বেশি বয়সের মাতৃত্ব বলা হয়। ডাক্তারি ভাষায় এ সময় সন্তান প্রসবে জটিলতা থাকে। তাহলে আমাদের দেশের তারকারা কেন এমন জটিলতা বেছে নেন? অনেকের শারীরিক সমস্যা থাকতে পারে। তাই বলে সবার তো নয়।

 

এইতো ধরুন তিশার কথা। প্রেম করে ২০১০ সালে মোস্তফা সরয়ার ফারুকীর সঙ্গে বিয়ের পিড়িতে বসেন। সংসারের বয়স হয়ে গেল ৮ বছর। কখনো ঝগড়া কিংবা তিক্ত খবর শোবিজে প্রকাশ হয়নি। অথচ সন্তান নেয়া হয়নি। বয়স তাঁর ৩৪।

 

বাংলাভিশনে ‘আমার আমি’ শিরোনামের একটি অনুষ্ঠান নিয়মিত উপস্থাপনা করতেন লাক্স তারকা মুনমুন। সে অনুষ্ঠানটিতে আর নেই তিনি। সেখানে মুনমুনের জায়গায় এসেছেন মিথিলা। অনুষ্ঠানটির প্রযোজক জানান, মুনমুন দেশে ঠিকমতো না থাকায় অন্য উপস্থাপককে নিতে হয়েছে। নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রভাষক তৌফিক হাসানকে বিয়ে করেছেন ৫ বছর হয়ে গেছে। সন্তানের জননী হতে পারেননি। ত্রিশের কোঠায় তিনিও পা দিয়েছেন। মারিয়া নূর, জান্নাতুল পিয়া, কুসুম শিকদার, সোনিয়া হোসেন, স্বাগতা, মাহিয়া মাহি, বন্যা মির্জারা সংসার পেতেছেন অনেকটা দিন হলো। মা হওয়ার জন্য যথেষ্ঠ বয়সও হয়েছে। ক্যারিয়ারও গড়েছেন। তবে মা হওয়া নিয়ে কোন চিন্তা আছে বলে জানা যায় না।

 

সুমাইয়া শিমু বিয়ের পিড়িতে বসেছেন একটু বয়স করে। বছর তিন আগে বিয়ে করেছেন। তার বর্তমান বয়স ৪০ বছর। মা হওয়ার কি পর্যাপ্ত বয়স হয়নি?

 

ডিভোর্স হয়েছে, নতুন সংসার হয়নি জয়া আহসান, চাঁদনি, তারিন, অহনা, শখ, সুজানাদের। চল্লিশোর্ধ বয়স জয়া কিংবা তারিনদের। চাঁদনি কিংবা সুজানারাও বয়স ত্রিশোর্ধ।

 

বিয়ের পিড়িতে তো বসতেই পাড়লেন না কনা, বিদ্যা সিনহা মিম, তমালিকা, হুমায়রা হিমু, ফারিয়া শাহরিন, পপিরা। বয়স ত্রিশের বেশি হলেও বিয়ে নিয়ে কোন টেনশন কিংবা গুঞ্জনও শোনা যায় না। মা হওয়া তো দূরের কথা।

 

সন্তান জন্ম দিলে যে তারকাখ্যাতি যায় না তার ভুরি ভুরি উদাহরণ রয়েছে শোবিজে। কিন্তু সন্তানে এত অনাগ্রহী কেন? সেটা শোবিজ কন্যাদের কাছে প্রশ্ন রইলো।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *