Home / জাতীয় / রেজিস্ট্রেশনের আওতায় আসবে অনলাইন নিউজ পোর্টাল-টিভি : তথ্যমন্ত্রী

রেজিস্ট্রেশনের আওতায় আসবে অনলাইন নিউজ পোর্টাল-টিভি : তথ্যমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক : অনলাইন নিউজপোর্টাল ও টিভি রেজিস্ট্রেশনের আওতায় আনা হবে বলে জানিয়েছেন তথ্যমন্ত্রী ড.হাছান মাহমুদ। তিনি বলেন, ‘অনেকে ঘরে বসে অনলাইন চালু করে ফেলেছে। অনলাইনের জন্য একটি নীতিমালা হচ্ছে, রেজিস্ট্রেশনের ব্যবস্থা হচ্ছে। অনলাইনের জন্য যখন রেজিস্ট্রেশনের ব্যবস্থা হবে নীতিমালার ভিত্তিতে, তখন ভূঁইফোড় অনলাইন বন্ধ হয়ে যাবে, কমে যাবে।’

 

মঙ্গলবার ( ১৫ জানুয়ারি) চট্টগ্রাম সার্কিট হাউজ সম্মেলন কক্ষে মতবিনিময় সভায় এসব জানান তথ্যমন্ত্রী। এসময় উপস্থিত ছিলেন নগর আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মাহতাব উদ্দিন চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক ও সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন, দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোসলেম উদ্দিন আহমেদ, চট্টগ্রাম জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এম এ সালাম, দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মফিজুর রহমানসহ আওয়ামী লীগ নেতারা।

 

ভূঁইফোড় ‘অনলাইন মিডিয়ার’ লাগাম টানতে পদক্ষেপের কথা জানতে চাইলে হাছান মাহমুদ বলেন, বাংলাদেশে শুধু নয়, সমগ্র পৃথিবীতে অনলাইন মিডিয়ার ব্যাপক বিস্তৃতি ঘটেছে। এই বিস্তৃতি বন্ধ করা সঠিক নয়। কিন্তু এটি যাতে সঠিকভাবে, নিয়ম-নীতির মধ্যে চলে, সেই কাজটি করা হচ্ছে আমাদের লক্ষ্য।

 

অনলাইন টেলিভিশনেরও লাগাম টেনে ধরার ব্যবস্থা হচ্ছে জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, যে কেউ একটা অনলাইন টেলিভিশন খুলে ফেলবে অনুমোদন ছাড়া, সেটি হতে পারে না। ক্যামেরা যখন সামনে ধরে, তখন কেউ বুঝতে পারবে না যে এটি আসল টেলিভিশন নাকি অনলাইন টেলিভিশন। প্রচুর অনলাইন টেলিভিশন হয়ে গেছে।যা-ই হোক, অনলাইন টেলিভিশনগুলোকেও নিয়মের মধ্যে আনার প্রক্রিয়া চালু হয়ে গেছে। সময় লাগবে। সাংবাদিক নেতৃবৃন্দের পরামর্শ লাগবে, তাদের সঙ্গে আলোচনা করতে হবে। আলোচনা করেই আমরা ঠিক করব।

 

চট্টগ্রাম টেলিভিশনের সম্প্রচারকাল ১২ ঘন্টায় উন্নীত করা হবে জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, চট্টগ্রাম টেলিভিশন কেন্দ্র এখন ৬ ঘন্টা সম্প্রচার করছে। আমি বাংলাদেশ টেলিভিশনের মহাপরিচালকের সঙ্গে কথা বলেছি, এটিকে ১২ ঘন্টায় উন্নীত করার জন্য। কয়েক মাস সময় লাগবে।

 

এক প্রশ্নের জবাবে হাছান মাহমুদ বলেন, ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন কিংবা অন্যান্য যে কোন আইনের প্রেক্ষিতে সাংবাদিক সমাজের যে উদ্বেগ আছে তা নিরসন করার লক্ষ্যে আমি আমি কাজ করব।

 

নবম ওয়েজবোর্ড যত দ্রুত সম্ভব ঘোষণা করা হবে জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, টেলিভিশনে ওয়েজবোর্ড নাই। টেলিভিশন সাংবাদিকরাও যাতে ওয়েজবোর্ডের আওতায় আসেন, সেটা নিয়ে আমরা কাজ করব।

 

তিনি বলেন, যত দ্রুত সম্ভব নবম ওয়েজবোর্ড বাস্তবায়নের লক্ষ্যে কাজ করবো। ২৮ তারিখ (২৮ জানুয়ারি) সময়সীমা আছে, চেষ্টা করবো সময়সীমার মধ্যে করা যায় কি না। কিন্তু সেটি করতে গেলে অনেকগুলো ধাপ অতিক্রম করতে হয়। যত দ্রুত সম্ভব সেটি আমরা করবো।

 

আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ বলেন, ‘আওয়ামী লীগ পরপর তিনবার রাষ্ট্র ক্ষমতায়। ভারতীয় উপমহাদেশতো নয়-ই, পুরো এশিয়া মহাদেশে যেখানে গণতান্ত্রিকভাবে সরকার নির্বাচিত হয় সেখানে মালয়েশিয়া ও সিঙ্গাপুর ছাড়া অন্য কোথাও একই দল পরপর তিনবার রাষ্ট্র ক্ষমতায় যায়নি। এভাবে পরপর তিনবার রাষ্ট্র ক্ষমতায় আওয়ামী লীগকে নিয়ে যাওয়ার কৃতিত্ব হচ্ছে আওয়ামী লীগ সভাপতি বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনার। শেখ হাসিনা কর্মঠ প্রধানমন্ত্রী। তার নেতৃত্বে গত ১০ বছরে বাংলাদেশ বদলে গেছে।’

 

তিনি বলেন, ‘২০০৮ সালে আমরা দুইটি স্বপ্নের কথা বলেছিলাম। একটি হচ্ছে ডিজিটাল বাংলাদেশ, আরেকটি হচ্ছে দিনবদল। যখন ডিজিটাল বাংলাদেশের স্লোগান দেই আমরা তখন অনেকেই এটিকে নিছক নির্বাচনী স্লোগান বলে হাস্যরস করেছিল। ডিজিটাল বাংলাদেশ এখন স্বপ্ন নয়, ডিজিটাল বাংলাদেশ বাস্তবতা।

 

ড. হাছান মাহমুদ বলেন, ‘১৭ কোটি মানুষের দেশে ১৫ কোটি সিম ইউজার, ১৪ কোটি মোবাইল ফোন ইউজার। এখন রিকশাওয়ালা ভাইয়ের হাতে মোবাইল ফোন, একজন ভিক্ষুকের হাতে মোবাইল ফোন। মোবাইল ফোনে এখন শুধু কথা বলা যায় তা নয়, ছবি দেখা যায়, ভিডিও কল করা যায়। পরীক্ষার রেসাল্ট পাওয়া যায়, টেলিমেডিসিনে ডাক্তারের পরামর্শ পাওয়া যায়, গ্রামের কৃষক মোবাইলে ফসলের ছবি পাঠিয়ে কৃষি অফিসারের পরামর্শ নেন।’

 

মন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব নেওয়ার পর প্রথম জন্মস্থান চট্টগ্রামে এসে সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময়ে তিনি এসব কথা বলেছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *