Home / সারাদেশ / সারাদেশে বৈধ প্রার্থী ২২৭৯

সারাদেশে বৈধ প্রার্থী ২২৭৯

নিজস্ব প্রতিবেদক : আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সারাদেশে বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের ৭৮৬টি মনোনয়নপত্র বাতিল ঘোষণা করেছে রিটার্নিং কর্মকর্তা।

 

বৈধ ঘোষণা করা হয়েছে ২ হাজার ২৭৯ প্রার্থীর মনোনয়নপত্র।

 

নির্বাচন কমিশনের (ইসি) যুগ্ম-সচিব (জনসংযোগ) এসএম অাসাদুজ্জামান এ তথ্য জানান।

 

গত ২৮ নভেম্বর মনোনয়নপত্র জমার শেষ দিনে সারাদেশে ৩ হাজার ৬৫টি মনোনয়নপত্র জমা পড়ে।

 

তবে এবার কোনো আসনে বিনাপ্রতিদ্বন্দ্বি প্রার্থী নেই।

 

২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারি নির্বাচনে ১৫৩ জন প্রার্থী বিনাপ্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছিলেন।

 

মনোনয়নপত্র যাচাই-বাছাই করে রোববার রিটার্নিং কর্মকর্তারা নির্বাচন কমিশনে (ইসি) যে তথ্য পাঠিয়েছেন সেগুলো বিশ্লেষণ করে জানা যায়, সারাদেশে ২ হাজার ২৭৯ প্রার্থীর মনোনয়নপত্র বৈধ এবং ৭৮৬টি মনোনয়নপত্র বাতিল ঘোষণা করা হয়েছে।

 

২৬৫টি আসনে এক বা একাধিক প্রার্থীর মনোনয়নপত্র বাতিল হয়েছে। তবে ৩৫টি আসনে কোনো প্রার্থীর মনোনয়নপত্র বাতিল হয়নি। সর্বোচ্চ বাতিল হয়েছে কুড়িগ্রাম-৪ আসনে। এখানে ১৩টি মনোনয়নপত্র বাতিল করা হয়েছে। জমা পড়েছিল ২৩টি মনোনয়নপত্র।

 

যেসব আসনে ৬টির বেশি মনোনয়নপত্র বাতিল হয়েছে-

 

ঢাকা-১৭ আসনে ২৭টির মধ্যে ১১টি বাতিল; ফরিদপুর-৪ আসনে ১৪টির মধ্যে ১০টি মনোনয়নপত্র বাতিল; ব্রাহ্মণবাড়িয়া-২ আসনে ২৭টির মধ্যে ১১টি বাতিল; ব্রাহ্মণবাড়িয়া-৩ আসনে ১৬টির মধ্যে ১০টি বাতিল; কুমিল্লা-৩ আসনে ২৭টির মধ্যে ১০টি বাতিল; বগুড়া-৭ আসনে ১৪টির মধ্যে ৭টি বাতিল; রাজশাহী-১ আসনে ১২টি মধ্যে ৮টি বাতিল; যশোর-২ আসনে ১৫টির মধ্যে ৭টি বাতিল; ময়মনসিংহ-৩ আসনে ১৭টির মধ্যে ১০টি বাতিল; কিশোরগঞ্জ-২ আসনে ১০টির মধ্যে ৭টি বাতিল; ঢাকা-৮ আসনে ২২টির মধ্যে ৭টি বাতিল।

 

যে ৩৫টি আসনে মনোনয়নপত্র বাতিল হয়নি—

 

ঠাকুরগাঁও-২; দিনাজপুর-৫; জয়পুরহাট-২; চাঁপাইনবাবগঞ্জ-৩; নওগাঁ-২; নাটোর-৩; পাবনা-২ ও ৪; কুষ্টিয়া-৩; বাগেরহাট-৩; খুলনা-১, ৩, ৪, ৫; সাতক্ষীরা-৩; পটুয়াখালী-৪; ভোলা-৩; বরিশাল-৪ ও ৫; পিরোজপুর-২; টাঙ্গাইল-২ ও ৫; জামালপুর-২; নেত্রকোনা-৩; ঢাকা-১২ ও ১৩; নরসিংদী-৪; গোপালগঞ্জ-২; মৌলভীবাজার-৪; কুমিল্লা-৭; চাঁদপুর-৩; ফেনী-২; নোয়াখালী-৫; লক্ষ্মীপুর-৩ ও কক্সবাজার-১।

 

নির্বাচনে মনোনয়নপত্র বাতিল হওয়া প্রার্থীরা আগামী ৩, ৪ ও ৫ ডিসেম্বর নির্বাচন কমিশনে আপিল করতে পারবেন। আপিলের ওপর শুনানি হবে ৬, ৭ ও ৮ ডিসেম্বর।

 

এছাড়া যাদের মনোনয়নপত্র বৈধ হয়েছে তাদের বিরুদ্ধেও সংক্ষুব্ধ ব্যক্তিরা নির্বাচন কমিশনে প্রমাণসহ আপিল করতে পারবেন।

 

আগামী ৯ ডিসেম্বর প্রার্থীতা প্রত্যাহারের শেষ দিন। ১০ ডিসেম্বর প্রতীক বরাদ্দ এবং ৩০ ডিসেম্বর ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *